মঙ্গলবার , ২০ জুন ২০২৩ | ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. আইন আদালত
  2. আন্তর্জাতিক
  3. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  4. কৃষি
  5. ক্যাম্পাস
  6. জাতীয়
  7. তথ্য ও প্রযুক্তি
  8. নির্বাচনী সংবাদ
  9. ফিচার
  10. বিনোদন
  11. মুক্ত মন্তব্য
  12. রাজনীতি
  13. সম্পাদকীয়
  14. সাক্ষাৎকার
  15. সারাদেশ

গাইবান্ধায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব শ্রীশ্রী জগন্নাথদেবের রথযাত্রায় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত

প্রতিবেদক
FIRST BANGLA NEWS
জুন ২০, ২০২৩ ১০:১০ অপরাহ্ণ

সঞ্জয় সাহা, গাইবান্ধা

 

 

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব শ্রীশ্রী জগন্নাথদেবের রথযাত্রা পালনে সারাদেশের ন্যায় গাইবান্ধায় আনন্দমুখর পরিবেশ ও কঠোর নিরাপত্তায় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন- গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক অলিউর রহমান ও পুলিশ সুপার কামাল হোসেন। উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদ গাইবান্ধা জেলার সভাপতি রনজিত বকসী সূর্য্য, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদ গাইবান্ধা জেলার সাধারণ সম্পাদক চঞ্চল সাহা, সাংগঠনিক সম্পাদক সজল সরকার, পুজা উদযাপন পরিষদ গাইবান্ধা জেলা সাধারণ সম্পাদক সুদেব চৌধুরী, ইসকন গাইবান্ধার পরিচালক শ্রীপাদ নরোত্তমানন্দ কৃষ্ণ দাস ব্রহ্মচারী, যুব ঐক্য পরিষদ গাইবান্ধা জেলার আহবায়ক সুমন চক্রবর্তী, যুগ্ন আহবায়ক সঞ্জয় সাহা, বিশাল সরকার, সদস্য সচিব অভিজিৎ দাস অভি, ছাত্র ঐক্য পরিষদ গাইবান্ধা জেলা সদস্য সচিব শুভ মহন্ত, কলেজ শাখার আহবায়ক গোবিন্দ সহ ইসকন মন্দির এর কর্মকর্তা ও সদস্যরা।

গাইবান্ধা সদর থানা পুলিশ, জেলা ডিবি পুলিশ সহ জেলা পুলিশ এর বিভিন্ন সদস্যরা নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করেন।

গাইবান্ধা সদরের তিন গাছতলার কনকরায় আন্তর্জাতিক কৃষ্ণ ভাবনামৃত সংঘ (ইসকন) প্রচার কেন্দ্র (আশ্রম) বিশ্বশান্তি ও মঙ্গল কামনায় অগ্নিহোত্র যজ্ঞ ভোগ প্রদানের মধ্য দিয়ে মঙ্গলবার বিকেলে রথযাত্রা উৎসবের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়।

 সনাতনী রীতি অনুযায়ী, প্রতি বছর চন্দ্র আষাঢ়ের শুক্লপক্ষের দ্বিতীয়া তিথিতে শুরু হয় জগন্নাথদেবের রথযাত্রা। আট দিনের এই আনন্দ আয়োজন নানা আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে শেষ হবে উল্টোরথের মধ্য দিয়ে। শোভাযাত্রাটি (ইসকন) আশ্রম হতে শুরু হয়ে জেলা পরিষদ, ডিবি রোড ও ভিএইড রোড হয়ে বড় কালিবাড়ী মন্দিরে গিয়ে শেষ হয়।

কথিত আছে, এই তিথিতে জগন্নাথ ভাই বলরাম ও বোন সুভদ্রার সঙ্গে মাসির বাড়ি যান। সেখান থেকে আবার সাতদিন পর মন্দিরে ফিরে আসেন। এটাকেই জগন্নাথ দেবের মাসির বাড়ি যাওয়া বলে। এই যাওয়াকে সোজা রথ, আর ফিরে আসাকে উল্টো রথ বলে।

এই রথযাত্রা ভারতের ওড়িশা, ঝাড়খণ্ড, পশ্চিমবঙ্গ, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়াসসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে আন্দোৎসবের মধ্যে দিয়ে উযাপিত হবে। ভারতের সর্বাধিক প্রসিদ্ধ রথযাত্রা ওড়িশার পুরী শহরের জগন্নাথ মন্দিরের রথযাত্রা। আর বাংলাদেশের ধামরাইয়ের রথযাত্রা বিশ্বের দ্বিতীয় সর্ববৃহৎ।

সনাতন ধর্মের মানুষদের বিশ্বাস, জগন্নাথদেব হলেন জগতের নাথ বা অধীশ্বর। জগৎ হচ্ছে বিশ্ব আর নাথ হচ্ছেন ঈশ্বর। তাই জগন্নাথ হচ্ছেন জগতের ঈশ্বর। তার অনুগ্রহ পেলে মানুষের মুক্তিলাভ হয়। জীবরূপে তাকে আর জন্ম নিতে হয় না। এ বিশ্বাস থেকেই রথের ওপর জগন্নাথদেবের প্রতিমূর্তি রেখে রথ নিয়ে যাত্রা করেন তারা।

আগামী ২৭ জুন উল্টো রথযাত্রার মধ্য দিয়ে এই উৎসবের সমাপ্তি ঘটবে।

সর্বশেষ - আইন আদালত

আপনার জন্য নির্বাচিত

সাদুল্লাপুরে ৪ জন মোটরসাইকেল চোর চক্রের সদস্য ও একটি মোটরসাইকেল উদ্ধার 

গোবিন্দগঞ্জে সংসদ সদস্য পদে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ডাঃ মোঃ শাহজাহান সরকার

বরগুনার তালতলীর শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ৪৮ প্রধান শিক্ষকের অভিযোগ

দিনাজপুরে ৫০ কেজি গাজাঁসহ আটক একজন। 

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উপলক্ষে ধানমন্ডি বত্রিশে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের শ্রদ্ধা নিবেদন

অবকাঠামোগত সমস্যায় জর্জরিত সুন্দরগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ঃ

ওসি সাজ্জাদ হোসেন’র কৌশলী ভূমিকায়, পলাশবাড়ীতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির ব্যাপক উন্নতি

মাদারীপুরে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন

সাদুল্লাপুরে দুর্গাপূজা উপলক্ষে আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত

মিঠাপুকুরে শেখ রাসেলের ৬০ তম জন্মদিন উপলক্ষে স্মৃতিচারণ ও দোয়া অনুষ্ঠান