শনিবার , ৮ জুলাই ২০২৩ | ৩রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. আইন আদালত
  2. আন্তর্জাতিক
  3. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  4. কৃষি
  5. ক্যাম্পাস
  6. জাতীয়
  7. তথ্য ও প্রযুক্তি
  8. নির্বাচনী সংবাদ
  9. ফিচার
  10. বিনোদন
  11. মুক্ত মন্তব্য
  12. রাজনীতি
  13. সম্পাদকীয়
  14. সাক্ষাৎকার
  15. সারাদেশ

গাইবান্ধা যৌতুকের দাবিতে স্বামী কর্তৃক পাশবিক নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ।

প্রতিবেদক
FIRST BANGLA NEWS
জুলাই ৮, ২০২৩ ৪:৪৮ অপরাহ্ণ

গাইবান্ধা প্রতিনিধি:- 

গাইবান্ধা সদর উপজেলা বাদিয়াখালী স্বামীর পাশবিক নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ।

নির্যাতিতা গৃহবধূ ও তার স্বজনরা জানায়, প্রায় ২ বছর পূর্বে গাইবান্ধা সদর উপজেলার বাদিয়াখালী ইউনিয়নের তালুক রিফাইতপুর গ্রামের ফারুক সরকার ছেলে রাশেদ সরকার সাথে একই উপজেলা রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের

  মহিরউদ্দিন মেয়ে মরিয়ম বিয়ে হয়।

 জানা গেছে, রাশেদ সরকার বাদিয়াখালী ষ্টেশন আলিম মাদ্রাসা নাইট গার্ড চাকরি করেন।

কিন্তু বিয়ের পর থেকেই যৌতুক-লোভী রাশেদ সরকার নানা অজুহাতে টাকা চেয়ে মরিয়ম উপর নির্যাতন করে আসছে। এ নিয়ে একাধিকবার পারিবারিক সামাজিক বৈঠকসহ ইউনিয়ন পরিষদ মেম্বার, চেয়ারম্যানের সমন্বয়ে শালিশ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় ও মুচলেকা মর্মে স্বামী রাশেদ ও তাঁর পরিবারকে সতর্ক করা হয়।

কিন্তু বিয়ের সময়ে মরিয়ম বাবা তেমন কোন সঙ্গতি না থাকলেও মেয়ের সুখের কথা ভেবে নগদ ২,২০,০০০/- দুই লক্ষ বিশ হাজার টাকা দেয় আসামীদেরকে।

এছাড়াও বিভিন্ন সময় ধার-দেনা করে জামাইকে টাকা পয়সা দিতেন মরিয়ম বাবা ।

কিন্তু রাসেদ সরকারের সীমাহীন দাবি মেটানো পরিবারের পক্ষে সম্ভব না হওয়ায় এর মাশুল হিসেবে মরিয়মকে তার শাস্তি ভোগ করতে হতো। একমাত্র ছেলে ভবিষ্যতের কথা ভেবে মরিয়ম সবকিছু নীরবে সহ্য করে আসছিল।

এরই ধারাবাহিকতায় গত ৪/৬/২০২৩ ইং রবিবার মরিয়মকে বাবার বাড়ি থেকে টাকা আনার জন্য চাপ দেয় যৌতুক লোভী রাশেদ সরকার,এতে টাকা আনতে অস্বীকৃতি জানালে। মরিয়ম উপর দফায় দফায় পাশবিক নির্যাতন চালায়। এতো ক্ষান্ত হয়নি পাষণ্ড স্বামী রাশেদ সরকার,

পরে কাপড় লন্ডী করা গরম ছেঁকা শরীরের বিভিন্ন জায়গায় লাগিয়ে দিলে শরীরের চামড়া পুড়ে জখম হয়।

 অসহনীয় এ নির্যাতনে মরিয়মের আর্ত-চিৎকারে এলাকা লোক জরো হতে থাকে পরে মরিয়মের বাবাকে খবর দিলে ওখান থেকেই গুরুত্বর অবস্থায় গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে ভর্তি করায়।

আহত গৃহবধূ মরিয়ম গাইবান্ধা সদর উপজেলার রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের মহির উদ্দিন মেয়ে।

 এ ঘটনায় মরিয়ম বাবা ০৮/৬/২৩ ইং তারিখে ৩ জনের নাম উল্লেখ করে গাইবান্ধা সদর থানা নারী নির্যাতনের মামলা করেন যাহার মামলা নং- ১২,আসামিরা হলেন, (১) মোঃ রাসেদ সরকার (২) মোঃ ফারুক সরকার (৩) মোছা রাশেদা বেগম,

এজাহার সূত্রে জানা যায়, মামলার একমাস অতিবাহিত হলেও এখনো কোন আসামীকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। এবিষয়ে মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা সাব ইন্সপেক্টর মোবারক আলী সাথে ফোনে কথা হলে তিনি বলেন দুজন আসামি জামিনে আছে, ও মামলা তদন্তধীন আছে বলে জানান।

  নির্যাতিতা ও তার স্বজনরা বলেন আইনের আওতায় এনে এ নির্মমতার দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করেন ভুক্তভোগী পরিবার।

সর্বশেষ - জাতীয়

আপনার জন্য নির্বাচিত

পবিপ্রবিতে আন্ত:অনুষদীয় ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০২৩ এর উদ্বোধন 

অনুমতি ছাড়াই অবাধে কাটা হচ্ছে পাহাড়-টিলা।

উৎফুল্ল জনতার উষ্ণ ভালবাসায় বিশাল মটর সাইকেল শোভাযাত্রা সহ নির্বাচনী এলাকা গোবিন্দগঞ্জে পৌছিলেন নৌকার নমিনি অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ

দেশের স্বাধীনতা অগ্রগতির জন্য শেখ হাসিনার এবার প্রধানমন্ত্রী হওয়া অনিবার্য ছিল   -সাবেক এমপি মনোরঞ্জন শীল গোপাল

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরে আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে শান্তি সমাবেশ 

পলাশবাড়ীতে জন্মাষ্টমী উদযাপনে প্রশাসনের প্রস্তুতি সভা

লালমনিরহাটে ভুট্টা ক্ষেত থেকে এক নবজাতক শিশুর মরদেহ উদ্ধার। 

গাইবান্ধায় এনসিটিএফ এর শিশু সুরক্ষা বিষয়ক স্কুল কমিটি গঠন ও সচেতনতামূলক কর্মসূচি।

বরগুনার তালতলীতে চলন্ত গাড়ি ভাঙচুর করে ছিনতাই, আহত -২

৩১,গাইবান্ধা-৩ আসনের দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করলেন আলহাজ্ব মোঃ সাহরিয়া খাঁন বিপ্লব