শনিবার , ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. আইন আদালত
  2. আন্তর্জাতিক
  3. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  4. কৃষি
  5. ক্যাম্পাস
  6. জাতীয়
  7. তথ্য ও প্রযুক্তি
  8. নির্বাচনী সংবাদ
  9. ফিচার
  10. বিনোদন
  11. মুক্ত মন্তব্য
  12. রাজনীতি
  13. সম্পাদকীয়
  14. সাক্ষাৎকার
  15. সারাদেশ

দেশমাতার শারীরিক অবস্থা ভালো নেই,শুধু বিএনপি নয় অন্য দলগুলোও নির্বাচনে যাবে না- রংপুরে মির্জা ফখরুল

প্রতিবেদক
FIRST BANGLA NEWS
সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২৩ ৪:০১ অপরাহ্ণ

রুবেল ইসলাম, রংপুর

রংপুরে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন- ২০১৪ সালে একটা নির্বাচন হয়েছিল, সেটি কি মার্কা নির্বাচন হয়েছিল সবাই জানে। ১৫৩ জনকে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছিল। রংপুরের মানুষও ভোট দিতে পারেনি। আর ২০১৮ সালের নির্বাচনে আগের রাতেই ভোট সব হয়ে গিয়েছিল। যে সরকারের আমলে পরপর দুটো নির্বাচন ডাকাতি হয়ে যায়, চুরি হয়ে যায়, জনগণ ভোট দিতে পারে না সেই সরকারের অধীনে আর নির্বাচন করা যায় না।

শনিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বেলা এগারোটায় রংপুর নগরীর গ্রান্ড হোটেল মোড়ে দলীয় কার্যালয়ের সামনে তারুণ্যের রোড মার্চের উদ্বোধনী পথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার ১ দফা দাবিতে জাতীয়তাবাদী যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল ও ছাত্রদল রংপুর থেকে দিনাজপুর অভিমুখে তারুণ্যের রোড মার্চ আয়োজন করে।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, শুধু বিএনপি নয় সারা বাংলাদেশের সকল রাজনৈতিক দল সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এই সরকারের অধীনে আর কোনো নির্বাচন নয়। বাম গণতান্ত্রিক জোট আমাদের সঙ্গে নেই কিন্তু তারাও ঘোষণা দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচনে যাবেন না।

আওয়ামী লীগ জনগণকে মিথ্যা বোঝানোর চেষ্টা করছে বলে দাবি করেন বিএনপি মহাসচিব। তিনি আরও বলেন, এই সরকার ভোট দিতে চেয়ে ভোট দেয় নাই এবং মানুষ ভোট দিতে পারে নাই। অথচ আমাদের এই দেশ প্রতিষ্ঠা হয়েছিল গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ব্যবস্থা তৈরি করার জন্য। দেশনেত্রীকে তারা (আওয়ামী লীগ) আটক করে রেখেছে। আমাদের তরুণদের আশা ভরসাস্থল, তরুণরা যার দিকে তাকিয়ে আছে সেই নেতা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে মিথ্যা মামলা দিয়ে সাজা দিয়ে তাকে দেশে আসতে দেয় না। তাকে নির্বাসিত করে রেখেছে।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, আজকে তারুণ্যের এই রোড মার্চ শুরু হলো। এই রোড মার্চ শেষ হবে যেদিন আমরা এই সরকারের পতন ঘটাতে পারব। আমাদের দাবি খুব পরিষ্কার, আপনি (শেখ হাসিনা) এখনই পদত্যাগ করেন। আপনাকে এই দেশের মানুষ আর ক্ষমতায় দেখতে চায় না। সংসদ বিলুপ্ত করেন, পার্লামেন্ট ভেঙ্গে দেন। আর নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দেন। নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করতে হবে। কারণ আপনার সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন পরিচালনা করতে পারবে না।

তিনি বলেন, নতুন নির্বাচন কমিশন অধীনে নির্বাচন হবে জনগণ অংশগ্রহণ করবে। যাকে ইচ্ছা তাকে ভোট দিয়ে পার্লামেন্ট তৈরি করবে, নতুন বাংলাদেশ তৈরি করবে। যদি নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে আমরা নির্বাচনে যেতে পারি তাহলে আমরা নির্বাচিত হয়ে আন্দোলনে অংশগ্রহণকারী দলগুলোকে নিয়ে জাতীয় সরকার গঠন করব।

বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা ভালো নেই উল্লেখ করে মহাসচিব বলেন, আমাদের নেত্রীকে মিথ্যা মামলা দিয়ে তাকে আটক করে সাজা দিয়ে কারাগারে রাখা হয়েছিল। এখন তাকে গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে। তিনি (খালেদা জিয়া) অত্যন্ত অসুস্থ, ডাক্তাররা সবাই খুব চিন্তিত। এই সরকারের কাছে তার পরিবার এবং আমরা বারবার তাকে বিদেশে নিয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা করার জন্য বলেছি। কারণ ডাক্তাররা বলেছেন এখানে তার চিকিৎসা করার কোনো সুযোগ তাদের আর নেই।

তিনি আরও বলেন, সরকার আমাদের কোনো কথাই শুনছে না। অথচ তারা নিজেরা (এমপি-মন্ত্রীরা) চিকিৎসার জন্য বারবার বিদেশে যায়।

 এক এগারোর সময় বর্তমান স্বঘোষিত প্রধানমন্ত্রী তিনি বন্দি ছিলেন, তখন তিনি কানের অসুখের কথা বলে প্যারোলে মুক্তি নিয়ে আমেরিকা গিয়েছিলেন। অথচ আজকে সেই প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসার কোনো সুযোগ দিচ্ছেন না।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, বিগত পনেরো বছর ধরে আমরা লক্ষ্য করেছি এই সরকার কলাকৌশল করে জোর করে ক্ষমতা দখল করে আছে। তারা অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে সুচিন্তিতভাবে এই বাংলাদেশ থেকে গণতন্ত্রকে নির্বাসিত করবার কাজ করে যাচ্ছে। আজকে বাংলাদেশের মানুষ ভোট দিয়ে তাদের প্রতিনিধি নির্বাচন করতে পারে না। দ্রব্যমূল্য নিয়ে মানুষ আজকে অসহায় অতিষ্ট হয়ে গেছে। চাল, তেল, লবণসহ সবকিছুর দাম কয়েকগুণ বেড়ে গেছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, বিদ্যুতের দাম বেড়েছে অনেক কিন্তু বিদ্যুৎ মানুষ পায় না। লোডশেডিং হতেই আছে কৃষি কাজে সেচ দিতে পারে না। আজকে ব্যাংকগুলো দুর্নীতি করে চুরি করে আওয়ামী লীগের লোকেরা বিদেশে পাচার করে দিচ্ছে। আজকে অর্থনীতি ক্রমাশয়ে নিচের দিকে নেমে গেছে, ধ্বংসের দিকে যাচ্ছে। পত্রপত্রিকায় খুললেই দেখবেন রিজার্ভ কমে যাচ্ছে। রিজার্ভ তো তারা (সরকার) চুরি করছে, সেই কারণে অর্থনীতির চাকা ঘুরছে না। এই সরকার অর্থনীতিকে সঠিকখাতে প্রবাহিত করতে ব্যর্থ হয়েছে, নিজেরা দুর্নীতির পাহাড় তৈরি করেছে।

রংপুর থেকে তারুণ্যের রোড মার্চ শুরু করা প্রসঙ্গ মির্জা ফখরুল বলেন, রংপুরের একটা বিরাট ঐতিহ্য আছে। সেই ঐতিহ্য হচ্ছে অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবার ঐতিহ্য। এই রংপুরে ব্রিটিশ আমলে কৃষকদের বিপ্লবের মধ্যদিয়ে তেভাগা আন্দোলন হয়েছিল। রংপুরকে নিয়েই আপনাদের কৃতিসন্তান সৈয়দ শামসুল হক লিখেছেন ‌‌নূরলদীনের সারাজীবন। সেই নূরলদীনের বিপ্লব বিদ্রোহ রংপুর থেকেই, সেদিন নূরলদীন ডাক দিয়েছিল জাগো, বাহে, কোনঠে সবায়। আজকে রংপুর থেকেই আবার এই তরুণরা বাংলাদেশের মানুষকে ডাক দিচ্ছে- এই ভয়াবহ একনায়কতন্ত্র, স্বৈরাচার এবং ফ্যাসিবাদ, লুটেরা সরকারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবার জন্য।

এরআগে যুবদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকুর সভাপতিত্বে পথসভায় বক্তব্য রাখেন- স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় সভাপতি এস এম জিলানী, ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রাশেদ ইকবাল খান। ‘জাগছে তারুণ্য জাগছে দেশ, টেইক ব্যাক বাংলাদেশ’ স্লোগানে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন যুবদলের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম মিল্টন, স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহসান এবং ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল।

এ ছাড়াও রংপুর মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক সামসুজ্জামান সামু, সদস্য সচি

সর্বশেষ - আইন আদালত

আপনার জন্য নির্বাচিত

সাদুল্লাপুরে বাঁশের পাতা পাড়তে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হয়ে কৃষকের মৃত্যু

সিলেটে জমকালো আয়োজনে সম্পন্ন হলো ‘কলম আন্তর্জাতিক সাহিত্য সম্মিলন-২০২৩

গোবিন্দগঞ্জে হাইওয়ে পুলিশের সেবা সপ্তাহ পালিত 

গোবিন্দগঞ্জে আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা মার্কাকে বিজয়ী করার লক্ষ্যে মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত  গাইবান্ধা প্রতিনিধি

পলাশবাড়ীর পেশাজীবী সংগঠনের সাথে নবাগত ওসির মতবিনিময় 

আমতলীতে কুরআনের কটুক্তিকারী আসাদ নূরের শাস্তি দাবি! 

দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলায় একটি ধানবোঝাই ট্রাকে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা

২কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত সড়কে ১মাসের মধ্যেই ফাটল

ফুলছড়িতে বোরো ধান’র কৃষক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

চিরিরবন্দরে পালিত ঘোড়া দিয়ে হালচাষ করেন কৃষক হানিফ