রবিবার , ১ অক্টোবর ২০২৩ | ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. আইন আদালত
  2. আন্তর্জাতিক
  3. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  4. কৃষি
  5. ক্যাম্পাস
  6. জাতীয়
  7. তথ্য ও প্রযুক্তি
  8. নির্বাচনী সংবাদ
  9. ফিচার
  10. বিনোদন
  11. মুক্ত মন্তব্য
  12. রাজনীতি
  13. সম্পাদকীয়
  14. সাক্ষাৎকার
  15. সারাদেশ

দিনাজপুরে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

প্রতিবেদক
FIRST BANGLA NEWS
অক্টোবর ১, ২০২৩ ৭:৫৫ অপরাহ্ণ

মোঃমোমিনুল ইসলাম,      স্টাফ রিপোর্টার (দিনাজপুর )    

দিনাজপুরে প্রকাশ্যে নারীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় তরিকুল ইসলাম ওরফে চান্দু (৩২) নামের একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ সময় হত্যার কাজে ব্যবহৃত ১টি দা জব্দ করা হয়।

আজ রোববার (০১ অক্টোবর) দুপুরে ১২টার দিকে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বিষয়টি নিশ্চিত করেন জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম এন্ড অপস) আব্দুল্লাহ্ আল মাসুম। একইদিন ভোরে জেলার খানসামা উপজেলার পাকের হাট এলাকার একটি হোটেল থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এর আগে বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) তরিকুল ইসলাম জেলার বাস টার্মিনাল এলাকায় জয়া বর্মণ (৩০) নামের এক হোটেল শ্রমিককে কুপিয়ে হত্যা করেন।

গ্রেপ্তার তরিকুল ইসলাম সদর উপজেলার মুরাদপুর দামপুকুর এলাকার বাসিন্দা ও একই এলাকার মৃত আশরাফ আলীর পালক পুত্র।

প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার বলেন, তরিকুল ও জয়া দুজনেই একটি হোটেলে কাজ করে আসছিলেন। কাজের সুবাদে তাদের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তরিকুল বিভিন্ন সময় জয়াকে টাকা দিতেন। জয়া বিবাহিত থাকায় মাঝে মধ্যেই তাদের মধ্যে মতের অমিল দেখা দেয়। এরই ধারাবাহিকতায় তরিকুল ২৭ সেপ্টেম্বর জয়াকে কুপিয়ে আত্মগোপন চলে যান। পরে তথ্য ও প্রযুক্তির সহায়তায় একটু বেগ পেতে হয়েছে কারন তরিকুলরের মোবাই ফোনটি ৭দিন আগে থেকে বন্ধ করে রাখা হয় পুলিশ অভিযান চালিয়ে তরিকুলকে গ্রেপ্তার করে।

আসামীকে প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, সে দীর্ঘদিন যাবৎ দিনাজপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে সাউদিয়া হোটেলে বয় হিসেবে কাজ করত। ভিকটিম একই হোটেলে কাজ করার সুবাদে তাদের মধ্যে ঘনিষ্ট সম্পর্ক তৈরী হয়। আসামী প্রায়শই ভিকটিমকে বিভিন্ন সময়ে টাকা পয়সা দিত বলে দাবী করে। তাদের মধ্যে বিয়ের বিষয়টি নিয়েও মাঝে মধ্যে মাতানৈক তৈরী হয়। এরই ধারাবাহিকতায় আসামী মোঃ তরিকুল ইসলাম চান্দু আঘাতের উদ্দেশ্যে ২০০/- টাকা দিয়ে দিনাজপুর কোতয়ালী থানাধীন মহারাজার মোড়স্থ কামাড়ের দোকান হইতে দা ক্রয় করিয়া গত ২৭/০৯/২০২৩খ্রিঃ তারিখ সন্ধ্যা অনুমান ০৬:৩০ ঘটিকা হইতে ০৭:৩০ ঘটিকার সময় ভিকটিম জয়া বর্মন(সুন্দরী)-কে উপর্যুপরি কুপিয়ে ঘটনাস্থল হইতে দ্রুত পালিয়ে আত্মগোপনে চলে যায়।

পুলিশ সুপার আরও বলেন, ঘটনার পর স্থানীয়রা আহত অবস্থায় জয়াকে উদ্ধার করে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তরিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় আরও দুইটি মামলা রয়েছে। তার এমন হত্যাকাণ্ডের পেছনে আরও কেউ যুক্ত আছে কিনা এ বিষয়ে তদন্ত চলছে।

আসামীর পিসিপিআর যাচাই করে আসামীর বিরুদ্ধে নিম্নে বর্ণিত মামলা পাওয়া যায়-

১। দিনাজপুর কোতয়ালী থানার মামলা নং-৪৬/১৬৮, তাং-২৩/০৩/২০২২খ্রিঃ,

ধারা-৪৪৭/৩৪১/৩২৬/৩০৭/১১৪/১০৯ পেনাল কোড ১৮৬০।

২। দিনাজপুর কোতয়ালী থানার মামলা নং-৬৩/৬০১, তাং-২৮/০৯/২০২১খ্রিঃ,

ধারা-১৪৩/৩৪২/৩২৩/৩০৭/৩৮৫ পেনাল কোড ১৮৬০।

প্রিন্ট এবং ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিক বিন্দু উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ - জাতীয়

আপনার জন্য নির্বাচিত