মঙ্গলবার , ১৬ মে ২০২৩ | ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. আইন আদালত
  2. আন্তর্জাতিক
  3. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  4. কৃষি
  5. ক্যাম্পাস
  6. জাতীয়
  7. তথ্য ও প্রযুক্তি
  8. নির্বাচনী সংবাদ
  9. ফিচার
  10. বিনোদন
  11. মুক্ত মন্তব্য
  12. রাজনীতি
  13. সম্পাদকীয়
  14. সাক্ষাৎকার
  15. সারাদেশ

সাদুল্লাপুরে পাগলীর মরদেহ দাফন ও সৎকারে সহযোগিতার হাত বাড়ালেন পুলিশ সুপার

প্রতিবেদক
FIRST BANGLA NEWS
মে ১৬, ২০২৩ ৮:৪২ অপরাহ্ণ

আমিনুর রহমান গাইবান্ধাঃ
সাদুল্লাপুরে অসহায় ভূমিহীন পাগলীর মরদেহ দাফন ও সৎকারে সহযোগিতার হাত বাড়ালেন গাইবান্ধার সুযোগ্য পুলিশ সুপার মোঃ কামাল হোসেন। সরেজমিনে জানা যায়- গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলাধীন জামালপুর ইউনিয়নের বড় জামালপুর গ্রামের হতদরিদ্র জহিরান পাগলী তার বয়স্ক বিধবা মায়ের সাথে থাকত। বয়স্ক মা স্মার্ট কার্ড নেওয়ার জন্য বড় জামালপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে যায়। পরে বাড়িতে এসে জহিরনকে মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার করে। পরে প্রতিবেশীদের সহযোগিতায় সকাল ১০.৩০ ঘটিকায় সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকাল ৪.৪৫ মিনিটে মৃত্যু হয়। মৃত্যুর ৫ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও পরিবার হতে কোন সৎকার্য ব্যবস্থা হয়নি। পুলিশ সুপার বিষয়টি তৎক্ষনাৎ জানতে পেয়ে সদর থানা আসেন এবং পরিবারের লোকদের সাথে কথা বলে সৎকার্য করার জন্য নগদ অর্থ প্রদান করেন। এসময় পুলিশ সুপার বলেন- মৃত্যু ব্যক্তির পরিবার হতদরিদ্র ও অস্বচ্ছল জানতে পেয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছি। বেওয়ারিশ কিংবা যে সকল লাশের সৎকার্য করতে সমস্যা আমাকে বলবেন আমরা জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে তার সৎকার্যের ব্যবস্থা করব। তবে উল্লেখ্য থাকে যে, চলতি মাসের গত ৩ মে সদর হাসপাতালে পরে থাকা বেওয়ারিশ লাশের সংবাদ গণমাধ্যমে প্রচারের পর পুলিশ সুপার জানতে পেয়ে নিজ দায়িত্ব থেকে জানাজা দাফন কার্য সম্পন্ন করেন।

এরকম অনেক নজীর রয়েছে যা তার চাকরী জীবনের ইতিহাস থেকে জানা গেছে।
সাদুল্লাপুর থানার নবাগত অফিসার ইনচার্জ মাহাবুব আলম রানা বলেন- পুলিশ সুপার স্যারের নিদর্শনা মোতাবেক মৃত্যু ব্যক্তির যাবতীয় কাজে সহযোগিতা করা হয়েছে। অস্বচ্ছল হতদরিদ্র ভূমিহীন মৃত্যু ব্যক্তির জন্য ভবিষ্যতে এটি অব্যাহত থাকবে ইনশাআল্লাহ। অত্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাহিদ হাসান শুভ বলেন- মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে ঐ ওয়ার্ডের মেম্বর কে পাঠানো হয়েছে সদর হাসপাতালে। পরে আমি নিজেও গাইবান্ধা ও সাদুল্লাপুর থানায় গিয়েছি। তবে এমন মানবীয় কাজে সহযোগিতা করার জন্য পুলিশ সুপারকে ধন্যবাদ জানান তিনি। ইউপি সদস্য সাংবাদিক আমিনুর রহমান বলেন- আমি সংবাদ পেয়ে মৃত্যু ব্যক্তির জন্য দায়িত্ব পালন করেছি মাত্র। অসহায় মানুষের পাশে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য পুলিশ প্রশাসনকে অসংখ্য ধন্যবাদ।।

সর্বশেষ - জাতীয়

আপনার জন্য নির্বাচিত